বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:৫৩ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
তিতাসে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১৫ টাকা কেজি দরে চাউল বিতরণে অনিয়ম তিতাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬ তম জন্মদিন পালিত দৈনিক ক্রাইম তালাশ সম্পাদক এর একধাপ সফলতার জীবন কাহিনি পড়ুন প্রধানমন্ত্রীর শুভ জন্মদিন উপলক্ষে রাজশাহী রেল শ্রমীক লীগের দোয়া মাহফিল রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের বর্ণাঢ্য আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর শুভ জন্মদিন পালন বাগমারা উপজেলা কৃষকলীগেরর পূণাঙ্গ কমিটি গঠন ইমাম শূন‍্য কর্নহার জামে মসজিদ বাগমারার গোয়ালকান্দি ইউপিতে পূজা উদযাপন প্রস্তুতি সম্পুর্ণ বাগমারার তাহেরপুর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন পালিত নাসিরনগরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন পালিত
মাটি লুটেরাদের ফাঁদে কৃষক

মাটি লুটেরাদের ফাঁদে কৃষক

মধুপুরে কোনোভাবেই থামানো যাচ্ছে না কৃষি জমির মাটি কাটা ও বিক্রি। চলছে মাটি লুটের মহোৎসব। রাত দিন বিরামহীনভাবে চলে মাটি খেকোদের রমরমা বাণিজ্য মাটি খেকোদের ফাঁদে পড়ে জমি হারাচ্ছেন কৃষকরা। মাটি ব্যবসায়ীদের দাপটে স্থানীয় সাধারণ কৃষকরা মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না, উল্টো তাদের ফাঁদে পড়ে বাপ-দাদার রেখে যাওয়া কৃষি জমি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যাচ্ছেন তারা। এ ঘটনায় এলাকায় স্থানীয়দের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে। কৃষি জমি রক্ষার স্বার্থে ইটভাটাসহ অন্যান্য মাটির ব্যবসা বন্ধের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

জানা গেছে, মধুপুর উপজেলার আশ্রা গ্রামের আফিজুল, নুরুল ইসলাম, মুসা। হলুদিয়ার ফরমান, জোয়াহের, হোসেন আলী, মোটেরবাজারের শামীম, বিদ্যুৎ। ছলিমের বাজারের লিটন, গাজী, নেদুরবাজারের সাখাওয়াত, রিয়াজ, বিল্লাল, কুড়ালিয়ার সফিকুল ইসলাম, দুখু মিয়া, গারোবাজারের পোলট্রি দুলাল, ইদ্রিস, মিষ্টার, সেন্টু খাঁ, রহিম, জামাল, আলমগীর খাঁ, ফারুক সরকার, খোকন মিয়া, মহিষমারার লিয়াকত আলী, শুভ, লাল মিয়া। এই সংঘবদ্ধ চক্রটি এলাকায় মাটি লুটের রাজত্ব কায়েম করেছে। শুধু কৃষিজমিই নষ্ট হচেছ না, রাতদিন দ্রুতগতিতে ড্রাম ট্রাক চলার কারণে বায়ু ও শব্দ দূষণে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। এছাড়াও জটাবাড়ী, বৃত্তিবাড়ী, নাগবাড়ী, দুর্গাপুর, জয়নাতলী, ধামালিয়া ধরাটিসহ বিভিন্ন গ্রামে রাত দিন চলছে এস্কেভেটর (ভেকু) দিয়ে কৃষি জমির মাটি লুটের মহোৎসব। এসব মাটি বাড়িঘর ও ইটভাটায় ব্যবহার হচ্ছে। কৃষি জমির টপসয়েল কেটে দশ চাকার ড্রাম ট্রাক, হাইড্রোলিক ট্রাক দিয়ে বিভিন্ন ইটভাটা ও বাড়িঘরে মাটি তোলাসহ বিভিন্ন কাজে মাটি স্থানান্তর করা হচ্ছে। মাটি ব্যবসায়ীরা এক শ্রেণির দালাল দিয়ে সাধারণ কৃষককে লোভে ফেলে ফসলি জমির মাটি বিক্রিতে উৎসাহিত করছেন। কৃষকরা ফাঁদে পড়ে নগদ টাকার আশায় ফসলি জমির মাটি বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছে। ফলে কমছে ফসলি জমি।

স্থানীয়রা জানান, প্রতি বছর ব্যাপক পরিমাণে ফসলি জমির মাটি কাটা হচ্ছে। যার কারণে দিন দিন ধান, আনারস, কলাসহ কৃষি ফসলের আবাদী জমির পরিমাণ হ্রাস পাচ্ছে। ফলে কৃষি উৎপাদন ও জীববৈচিত্র্য মারাত্মক হুমকির মুখে পড়ছে। অনেক সময় প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিতে দিনের আলোতে নয়, রাতের আঁঁধারেও চলে মাটি কাটা।

স্থানীয়দের অভিযোগ, গ্রামীণ পাকা ও কাচা সড়কে রাত দিন শত শত মাটির ট্রাক যাতায়াতের ফলে দ্রুত নষ্ট হয়ে যাচ্ছে রাস্তাঘাট। গাড়ি থেকে পাকা সড়কে পড়ে যাওয়া মাটি বৃষ্টির সময় কার্পেটিং উঠে যায়। দুর্ঘটনায় পতিত হয় ছোট ছোট যানবাহন।

মহিষমারা ছলিমের বাজারের মাটি ব্যবসায়ী গাজী জানান, তিনি ইট ভাটায় মাটি কাটার জমি বন্দোবস্ত করে দেওয়ার সুবাদে কমিশন পান। বর্তমানে বড়বাইদ এলাকায় তার এস্কেভেটর ভেকু দিয়ে মাটি কাটা হচ্ছে। মাটি ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম জানান, প্রতি হাইড্রোলিক ট্রাক মাটি ৬শ থেকে এক হাজার টাকা ধরে বিক্রি করছেন।

মধুপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীমা ইয়াসমীন বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে, তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ফেসবুকে সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2017 আলোকিত ভোরের বার্তা
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com