শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৫:১৯ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
বাগমারার গোয়ালকান্দি ইউপিতে ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের কার্যকরি কমিটির সভা অনুষ্ঠিত নওগাঁর আত্রাইয়ে চাঞ্চল্যকর চুরির ঘটনায় আটক-১ আসল কারখানায় নকল ক্যাবল, জরিমানা ২ লাখ রানীশংকৈলে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত পুঠিয়ায় কোভিড-১৯ প্রতিরোধ অবহিতকরন সভা অনুষ্ঠিত কেশরহাট পৌর বিএনপির সভাপতি হতে চান সাবেক মেয়র আলো আত্রাইয়ে ব্যক্তি উদ্যোগে কাজী নজরুলের জন্মদিন পালন বাগমারা’য় পুলিশে’র অভিযানে ৯ জন জুয়াড়ী সহ ১১ জন আটক রাজশাহীর চারঘাটে আনসার ও ভিডিপি উপজেলা সমাবেশ অনুষ্ঠিত নাসিরনগরে অটিজম ও নিউরো ডেভেলপমেন্টাল সচেতনতা বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন ওয়ার্কশপ
বিভিন্ন মিডিয়ার সংবাদকর্মী পরিচয়দানকারী প্রতারক রুবেলের বিরুদ্ধে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ

বিভিন্ন মিডিয়ার সংবাদকর্মী পরিচয়দানকারী প্রতারক রুবেলের বিরুদ্ধে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ

এস আর নিরব যশোরঃ যশোরে রুবেল হোসেন নামে কথিত এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে পুলিশ সুপারের কার্যালয়সহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে যৌতুক দাবি, নারীনির্যাতন ও প্রতারণামূলক ভাবে অর্থ হাতানোর অভিযোগ করেছেন সেলিনা নামের এক নারী। সে রুবেল হোসেনের দ্বিতীয় স্ত্রী ।

রুবেল হুসাইন ,চৌগাছা, ইছাপুর থানাপাড়া গ্রামের, (পাঁচ নামনা মসজিদের সামনে) -বজলুর রহমানের ছেলে। (রুবেল হোসেনের বর্তমান ঠিকানা )

রবিবার( ১০/০৪/২২) যশোর পুলিশ সুপারের কার্যালয় সহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে এই অভিযোগ করেন রুবেলের দ্বিতীয় স্ত্রী সেলিনা বেগম।
Hide quoted text

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বিবাহের পর থেকে ঢাকা গাজীপুর সহ বিভিন্ন জায়গায় ঘর ভাড়া রাখিয়া সংসার করতে থাকে রুবেল। গত ৮ মাস আগে যশোর বাহাদুর পুর জেস গার্ডেন পার্ক এর পাশে একটি ঘর ভাড়া করে এবং সর্বশেষ কাশিমপুর ইউনিয়নের নুরপুরে ঘর ভাড়া করে ভুক্তভোগির সাথে সংসার করতে থাকে রুবেল। এক পর্যায়ে ভুক্তভোগী নারী অন্তঃসত্ত্বা হলে রুবেল তাকে ফেলিয়া তার চৌগাছার বাড়িতে চলিয়া যায় এবং ভুক্তভোগির কাছে তিন লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করে যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় গত তিন মাস ধরে খোঁজখবর নেওয়া বন্ধ করে দেয় রুবেল। ভুক্তভোগী নিরুপায় হয়ে রুবেলের বিরুদ্ধে আদালতে নারী নির্যাতন ও যৌতুক মামলা করেন। মামলাটি আদালতে চলমান আছে। বর্তমানে আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী নারী। অভাব-অনটন আর ঘর ভাড়া দিতে না পারায় ভাড়া বাড়ি ছেড়ে বর্তমানে সে তার মায়ের বাসাতে অবস্থান করছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভুক্তভোগী ওই নারী জানান, গত ১৪/০১/১৯ইং তারিখে রুবেল হোসেনের সাথে বিবাহ হয় আমার।রুবেল গাজীপুর একটি গার্মেন্টসে সিকিউরিটি গার্ডের চাকরি করতো আমিও ওই গার্মেন্টসে চাকরি করতাম। চাকরির সুবাদে রুবেলের সাথে আমার পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে রুবেল আমার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়েে তোলে এবং আমার পূর্বের স্বামীকে তালাক দিতে বাধ্য করে। আগের ঘরে আমার একটি ছেলে ও একটি মেয়ে আছে। আমাকে প্রতারণামূলকভাবে ফুসলিয়ে বিবাহ করে এবং বিভিন্ন স্থানে ঘর ভাড়া করিয়া আমার সাথে সংসার করে ও আমার সমস্ত টাকা-পয়সা হাতিয়ে নেয়।
আমি দীর্ঘদিন চাকরি করি ওকে অনেক টাকা দিয়েছি। ওর বিভিন্ন মেয়েদের সাথে প্রেমের সম্পর্ক আছে। ও যেখানে যাই সেখানেই মেয়েদের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং অন্তরঙ্গ সময় কাটাই। আমি অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পরে গত এক মাস আগে আমাকে রেখে কোটচাঁদপুর উপজেলার ভালাইপুর গ্রামে তৃতীয় বিবাহ করেছে। ভুক্তভোগী ওই নারী আরো জানিয়েছেন, আপনাদের কাছে আমার একটাই অনুরোধ আমার মত আর কোন মেয়ের সর্বনাশ যাতে রুবেল না করতে পারে। তার উপযুক্ত শাস্তির দাবি করেন ওই নারী।

খোঁজখবর নিয়ে জানা যায়, রুবেল একজন আলোচিত প্রতারক। মানুষের সাথে প্রতারণা করায় তার প্রধান পেশা। সিকিউরিটি গার্ড থেকে হয়েছেন কথিত সাংবাদিক। পরে তার অপকর্মের কথা সংবাদপত্রের বিভিন্ন মিডিয়ার কর্তৃপক্ষ জানতে পেরে বিভিন্ন মিডিয়া থেকে বহিষ্কার হন তিনি।তার বর্তমান ঠিকানায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রুবেল ও তার পরিবার এলাকায় পরিচয় দেন রুবেল ঢাকায় একটি ওষুধ কোম্পানিতে চাকরি করে। খোঁজ নিয়ে আরো জানা যায়, সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন জেলায় দাপিয়ে বেড়িয়েছেন তিনি। বিভিন্ন মিডিয়ার সংবাদকর্মী পরিচয়দানকারী এই আলোচিত প্রতারক যখন যেখানে যাই সেখানেই মানুষের প্রতারণা করেন। গত পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যশোরের বিভিন্ন উপজেলা থেকে প্রতারণা করে হাতিয়ে নিয়েছেন বিপুল পরিমাণ টাকা। সে নামিদামি বিভিন্ন মিডিয়ার নাম ব্যবহার করে নিউজ ও বিজ্ঞাপন দেওয়ার কথা বলে এই টাকা হাতিয়েছেন। সাংবাদিকতা করার আড়ালে নিজেকে অবিবাহিত পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন মেয়েদের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টা ও করছে এই প্রতারক।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নারী জানান, রুবেল নিজেকে অবিবাহিত পরিচয় দিয়ে আমার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করে এবং আমাকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখায়।তার কথায় সন্দেহ হওয়ায় তার সম্বন্ধে খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারি সে একটা আলোচিত প্রতারক।

যশোর সদর উপজেলার খাজুরা অঞ্চলের বিভিন্ন দোকানদারের কাছ থেকে টাকা ধার ও দোকানদারের কাছ থেকে বিভিন্ন সময় বাকি কেনাবেচা করে টাকা দেওয়ার ভয়ে পালিয়ে বেড়াই। রুবেল হোসেন এমনই এক প্রতারক যে নিজের পরিচয় পত্র টি নকল বানিয়ে বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন রকম পরিচয় দিয়ে থাকে। তার প্রকৃত পরিচয় গোপন করে মানুষের কাছে মিথ্যা পরিচয় প্রদান করে যার ফলে সে যত বড় অপরাধই করুক না কেন তার বিরুদ্ধে কেউ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে না সাধারণ মানুষ। সে কখনো তার বাড়ি গাজীপুর, মহেশপুর, যশোর, চৌগাছা, ফরিদপুর সহ বিভিন্ন জায়গার কথা বলে পরিচয় দিয়ে থাকে। আলোচিত এ প্রতারক যশোরের এক সাংবাদিকের কাছ থেকে ৪৫,০০০ হাজার টাকা একটি ক্যামেরা কেনার জন্য ধার নিয়ে টাকা না দিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায় ওই সাংবাদিক টাকা উদ্ধারের জন্য প্রশাসনের দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

এ বিষয়ে জানার জন্য রুবেল হোসেনের মুঠোফোনে (01903-171423) একাধিকবার কল করে যোগাযোগ করা চেষ্টা করলে ফোনে কল হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

ফেসবুকে সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2017 আলোকিত ভোরের বার্তা
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com