শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০১:৪৭ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
বাগমারার রামরামা বরজপাড়া থেকে কুখ্যাত মাদক ব্যাবসায়ী আনোয়ার ৫১৫ পিছ ইযাবা সহ পুলিশের হাতে আটক আমতলী সাংবাদিক ক্লাব ও উপজেলা প্রেস ক্লাবের যৌথ সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত চারঘাটে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীদের ধর্মীয় গীর্জা নির্মান প্রকল্পের শুভ উদ্বোধন বাঘায় বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত আরএমপি কর্ণহার থানা এর উদ্দ‍্যোগে শারদীয় দূর্গাপূজার সম্প্রতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত রাজশাহীতে চাকরির আশায় যুবক নিঃশ্ব প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা রাজশাহীতে চাকরি ছাড়ার ১ বছর পরে মামলা করে অর্থ দাবি নাসিরনগর দুর্গাপূজা উপলক্ষে জি,আর(চাল) বিতরণ চারঘাটে প্রতিমায় রং তুলির আচঁড়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কারিগররা তিতাসে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১৫ টাকা কেজি দরে চাউল বিতরণে অনিয়ম
চান্দিনায় প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

চান্দিনায় প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

এস এ ডিউক ভূইয়া-কুমিল্লা থেকেঃ কুমিল্লার চান্দিনায় শুহিলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি ( কিটস অ্যালাউন্স) টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি নিয়ে পুরো এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসী মিলে এ ঘটনায় উক্ত বিদ্যালয়ের দপ্তরি মোঃ সাদ্দাম হোসেন নামে এক যুবককের বিরুদ্ধে উপবৃত্তি ( কিটস অ্যালাউন্স) টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগ করেন।

উপজেলার ১নং শুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের শুহিলপুর গ্ৰামে ৫নং শুহিলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, ২০২০-২০২১ অর্থবছরের উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্পের আওতায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি ও জামা, জুতা এবং ব্যাগ কেনার ( কিটস অ্যালাউন্স) টাকা মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস নগদের মাধ্যমে গত সপ্তাহ থেকে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের দেওয়া মা-বাবা বা বৈধ অভিভাবকের মোবাইল নম্বরে আসতে শুরু করে। দপ্তরি মোঃ সাদ্দাম হোসেন গোপন পিন নাম্বার ব্যবহার করে ৩৫-৪০ শিক্ষার্থীর টাকা আত্মসাৎ করেছেন। অভিভাবকের কাছে এ অনিয়ম হাতে নাতে ধরা পড়ায় অনিয়মের প্রতিবাদে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয় জনগণ বিদ্যালয়টি ঘেরাও করেছে।

গত বুধবার দুপুরে সরেজমিন পরিদর্শনে গেলে শুহিলপুর গ্ৰামের ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের অভিভাবক মোঃ ইসমাইল, মোঃ রেহান উদ্দিন, শাহিদা বেগম, মোঃ আলমাস, শাহজাহান, রুবেল, কন্ঠ শিল্পী এ.এম ইয়াছিন সহ অন্তত ৪০ অভিভাবকদের অভিযোগ করে বলেন, মোবাইল নাম্বারে উপবৃত্তি ( কিটস অ্যালাউন্স) টাকা আসার বিষয়টি জানতে পারি। আমরা গ্ৰামের মানুষ সহজ-সরল, মোবাইল সম্পর্কে তেমন কোন ধারণা নেই। উপবৃত্তি ( কিটস অ্যালাউন্স) টাকার মেসেজ আসছে কিনা বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য ওই বিদ্যালয়ের দপ্তরি মোঃ সাদ্দাম হোসেনের কাছে জানতে চাইলে মোবাইল ফোনটি হাতে নিয়ে অন্য নাম্বারে সেন্ডমানী/ ক্যাশ আউট করে উত্তোলনের মাধ্যমে নির্ধারিত অংকের ওই টাকা আত্মসাৎ করেছেন। আমাদের মোবাইলে আসা ওই মেসেজ মুছে ফেলে বলেন টাকার কোন মেসেজ আসেনি এগুলো অন্য মেসেজ। স্থানীয় ইলিয়টগঞ্জ বাজারের মোবাইল ব্যাংকিং এজেন্ট ব্যবসায়ী মোঃ নাছির উদ্দিন এর দোকান থেকে বেশ কয়েকজনের টাকা উত্তোলনের প্রমানও মিলেছে। পূর্বেও তার বিরুদ্ধে এধরনের অভিযোগ রয়েছে। এবিষয়টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিশির কে জানানোর পর থেকে দপ্তরি সাদ্দাম হোসেন আত্নগোপনে রয়েছেন। এঘটনায় শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয় জনগণ খুব প্রকাশ করে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন।

মোবাইল ব্যাংকিং এজেন্ট ব্যবসায়ী মোঃ নাছির উদ্দিন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, ১৩-১৪ জনের টাকা আমার দোকান থেকে উত্তোলন করেছে সাদ্দাম হোসেন। বাকি টাকা কোথা থেকে উত্তোলন করা হয়েছে তা আমার জানা নেই।

এঘটনায় শুহিলপুর গ্ৰামের কাচারী বাড়ির মোঃ মান্নান মিয়ার ছেলে মোঃ সাদ্দাম হোসেন অর্থ আত্নসাতের বিষয়টি শিকার করে মোঠোফোনে মুক্তখবর কে জানান, অভিযোগটি সত্য লোভের বসবর্তি হয়ে এমন কাজ করে ফেলেছি। তবে ২-৩ জনের টাকা ফেরত দিয়েছি। বর্তমানে আমার ব্যাক্তিগত কাজে এলাকার বাহিরে রয়েছি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে ৫নং শুহিলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিশির মুক্ত খবর কে বলেন, বিদ্যালয়ে ২০২০-২০২১ অর্থবছরে ৩০৩ জন শিক্ষার্থীর উপবৃত্তি ( কিটস অ্যালাউন্স) টাকা আসার কথা কিন্তু কতজন শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের মোবাইল নম্বরে টাকার মেসেজ এসেছে তা আমার জানা নেই। চলতি বছরে মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৪৪২ জন। এ বিদ্যালয়ের দপ্তরি মোঃ সাদ্দাম হোসেন শিক্ষার্থীদের টাকা আত্মসাতের বিষয়টি অভিভাবকের সূত্রে জানতে পেরে বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ নাছির উদ্দিন কে জানিয়ে যে সকল শিক্ষার্থী টাকা পায়নি তাদের তালিকা করে অর্থ আত্মসাতের বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত দরখাস্ত জমা দিয়েছি।

ওই বিদ্যালয়ের নবাগত সভাপতি মোঃ নাছির উদ্দিন মুক্তখবর কে বলেন, সে বিদ্যালয়ের একজন দপ্তরি হয়ে যে কাজটি করেছে তা মোটেও উচিত হয়নি অত্যন্ত দুঃখজনক। সামনে কোরবানির ঈদ ঘনিয়ে আসছে এই সময় উপবৃত্তি (কিটস অ্যালাউন্স) টাকা পেলে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকগণ উপকৃত হতো। তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া প্রয়োজন।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ মনিরুজ্জামান মুক্তখবর কে জানান, এবিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লিখিতভাবে জানিয়েছেন, তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

ফেসবুকে সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2017 আলোকিত ভোরের বার্তা
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com