শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০২:৩৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
বাগমারার রামরামা বরজপাড়া থেকে কুখ্যাত মাদক ব্যাবসায়ী আনোয়ার ৫১৫ পিছ ইযাবা সহ পুলিশের হাতে আটক আমতলী সাংবাদিক ক্লাব ও উপজেলা প্রেস ক্লাবের যৌথ সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত চারঘাটে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীদের ধর্মীয় গীর্জা নির্মান প্রকল্পের শুভ উদ্বোধন বাঘায় বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত আরএমপি কর্ণহার থানা এর উদ্দ‍্যোগে শারদীয় দূর্গাপূজার সম্প্রতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত রাজশাহীতে চাকরির আশায় যুবক নিঃশ্ব প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা রাজশাহীতে চাকরি ছাড়ার ১ বছর পরে মামলা করে অর্থ দাবি নাসিরনগর দুর্গাপূজা উপলক্ষে জি,আর(চাল) বিতরণ চারঘাটে প্রতিমায় রং তুলির আচঁড়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কারিগররা তিতাসে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১৫ টাকা কেজি দরে চাউল বিতরণে অনিয়ম
তিতাসে সফল মাল্টা চাষি আনোয়ার হোসেনের মুখে সোনালী হাসি

তিতাসে সফল মাল্টা চাষি আনোয়ার হোসেনের মুখে সোনালী হাসি

তিতাস (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার তিতাসের সফল মাল্টা চাষি আনোয়ার হোসেনের মুখে ফুটেছে সোনালী হাসি।উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানা যায়,

উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের কালাইগোবিন্দপুর গ্রামের প্রবাস ফেরত মো. আনোয়ার হোসেন ২ বছর ৬ আগে তার ১০ শতাংশ জমির বাগান বাড়িতে মাল্টা চাষ করেছে।তাকে মাল্টা চাষ করতে সার্বিক সহযোগীতা করেছে উপজেলা কৃষি অফিস। জানা যায়,বলরামপুর ইউনিয়নের কালাইগোবিন্দপুর গ্রামের প্রবাস ফেরত মো. আনোয়ার হোসেনকে এই বাগানটি প্রদর্শনী হিসেবে দেওয়া হয়।তার ১০ শতাংশ জমির পুরোটাই বালি দিয়ে ভরাট ছিলো।আনোয়ার হোসেন চিন্তায় ছিলেন এই বাগান বাড়িতে কি ধরনের ফসল করা যায়,তখনই তাকে মাল্টা চাষের পরামর্শ দেন উপজেলা সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো.কাউছার আহমেদ।তার পরামর্শ ও সহযোগীতা নিয়েই আনোয়ার হোসেন তার ১০ শতাংশ জমির বাগান বাড়িতে মাল্টা চাষ করতে শুরু করেন।এরপর থেকেই উপজেলা সহকারী কৃষি অফিসার মো. কাউছার আহমেদ নিয়মিত তার মাল্টা বাগানটির খোঁজ খবর নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।
এবিষয়ে উপজেলা সহকারী কৃষি অফিসার মো.কাউছার আহমেদ জানান, আমার কাছে বলরামপুর ইউনিয়নের কালাইগোবিন্দপুর গ্রামের প্রবাস ফেরত মো. আনোয়ার হোসেন তার ১০ শতাংশ জমির বাগান বাড়িতে কী ধরনের ফসল করা যায়,এ ধরনের পরামর্শ চাইলে তখন আমি তাকে মাল্টা চাষ করার জন্য পরামর্শ দেই এবং লেবু জাতীয় ফসলের সম্প্রসারণ, ব্যবস্থাপনা ও উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় তার ১০ শতাংশ জমির বাগান বাড়িতে বারি ১ জাতের মাল্টা ও কিছু কলম্বো জাতের লেবুর চারা দিয়ে এই বাগানের চাষ শুরু হয়। বর্তমানে তার মাল্টা বাগানের বয়স ২ বছর ৬ মাস চলছে।প্রতিটি গাছে ঝুলছে প্রচুর পরিমাণের মাল্টা।এবছর তার বাগান বাড়িতে প্রচুর পরিমাণের মাল্টা দেখা যাচ্ছে।গাছ প্রতি প্রায় ২শ থেকে ৩ শ মাল্টা ঝুলে আছে,যা আগামী নভেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময়ে পরিপক্ক হবে। মাল্টার এমন ভালো ফলনে কৃষক আনোয়ার হোসেনের মুখে ফুটেছে সোনালী হাসি।তিনি আরো বলেন-আমার বিশ্বাস, কারিগরি ও প্রযুক্তিগত সহায়তা পেলে একজন কৃষক অন্যান্য ফসলের চেয়ে ফল বাগানে অনেক লাভবান হবেন।

ফেসবুকে সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2017 আলোকিত ভোরের বার্তা
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com