সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:২৬ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
বাগমারা তাহেরপুর প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাংবাদিক সনেট নাসিরনগর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের রুবিনা আক্তারকে আহবায়ক ও সাহানা বেগমকে সদস্য সচিব করে নতুন কমিটি গঠন আত্রাইয়ে শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে নিরাপত্তা বিষয়ক মতবিনিময় সভা সাংবাদিককে হেনস্থা করে পুলিশ বললেন, ‘দেখেন! দেখেন! নামটা ভালো করে দেখে যান’ সাংবাদিককে হেনস্থা করে পুলিল বললেন, ‘দেখেন! দেখেন! নামটা ভালো করে দেখে যান’ আত্রাইয়ে মিনা দিবস উদযাপন আত্রাইয়ে অ্যাসিস্টিভ ডিভাইস বিতরণ আমতলীতে পোস্টার লাগিয়ে চিকিৎসার প্রচারনা, ভুয়া ডাক্তারের আত্রাইয়ে মিনা দিবস পালিত নাসিরনগরে আর্দশ বীজতলা করে রোপা আমন রোপন হচ্ছে। বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা
রাজশাহীতে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচারের অভিযোগ

রাজশাহীতে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচারের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে প্রতিহিংসা মুলক মিথ্যা অপপ্রচারের অভিযোগ অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার কিছু গনমাধ্যমে ছাত্রলীগ নেতাকে জড়িয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করে অপপ্রচারের তিব্র নিন্দা জানিয়েছে ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা।

গনমাধ্যমে পাঠানো ছাত্রলীগ ওই নেতার পক্ষ থেকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচারের তিব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয়।

আরো জানানো হয়, গত শুক্রবার দিবাগত রাতে পিএ হতে না চাওয়ায় রাতভর রাজশাহী মেডিকেল কলেজের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা কাজী নুরুন্নবী হোস্টেলে রুমে পুঠিয়া শিবপুরহাট গ্রামের আলমগীরের ছেলে মিলন হোসেন নামে যে যুবককে নির্যাতনের যে অভিযোগ তুলেছে ছাত্রলীগ নেতা জাকির হোসেন অমির বিরুদ্ধে তা একদম অবান্তর, মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও প্রতিহিংসা মুলক। পিএ হতে না চাওয়াতে ছাত্রলীগ নেতা নির্যাতন করকে যুবককে এমন অভিযোগ সাহ্যকর ও ভিত্তিহীন।

জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের কোন পিএ লাগে না। এমন তথ্য একদম বানোয়াট।

প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে, মিলনকে পুঠিয়া ছাত্রলীগের কিছু ছেলে ছাত্রলীগ নেতার সাথে পরিচয় করে দিতে নিয়ে আসে। তার রুমের কাজ করবে বলে সে। রাতে ছিল সে রুমে। সকালে ঘুম থেকে সবার ওঠার আগেই এক ছাত্রলীগ নেতার বালিশের নিচে থাকা ৫০ হাজার টাকা সে চুরি করে নিয়ে চলে যায়। এ ঘটনার পরে ছাত্রলীগ নেতা তাকে ডেকে পাঠায়। মিলনকে ছাত্রলীগ নেতার কাছে আনার পরে উপস্থিত কিছু ছেলে পেলে, চড়-থাপ্পড় দিয়েছে। তাকে বলা হয়েছে, এসব আর না করার জন্য। তাকে ছোট ভাই হিসাবে শাসন করেন ছাত্রলীগের ওই নেতা।

এ বিষয় জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন অমি বলেন, আমি তো এমপি, বা মন্ত্রী না, যে আমার পিএ নিয়োগ দিতে হবে। মিলন কে রুমের কাজ করার জন্য এনে ছিলো। এক রাত রুমে ছিলো সে। সকালে রুমের এক ছেলের ৫০ হাজার টাকা চুরি করে নিয়ে যায়। এ বিষয় তাকে ডেকে ছিলাম। সে স্বীকার করেছে যে টাকা সে চুরি করেছে। এর পরে উপস্থিত ছেলে পেলে চড় ও থাপ্পড় দেই।

তিনি আরো বলেন, এমন অভিযোগ হাস্যকর। একটি চক্র রাজনৈতিক ভাবে আমার সুনাম ক্ষুন্ন করতে এ টা নিয়ে অপপ্রচার করছে। গনমাধ্যম কর্মীদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ করানো হয়েছে। এটা নেক্কার জনক ঘটনা। এসবের সাথে যারা জড়িতো তাদের দ্রুত সনাক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

ফেসবুকে সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2017 আলোকিত ভোরের বার্তা
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com