শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:৫১ পূর্বাহ্ন

বাগমারার গোয়ালকান্দি ইউপিতে পূজা উদযাপন প্রস্তুতি সম্পুর্ণ

বাগমারার গোয়ালকান্দি ইউপিতে পূজা উদযাপন প্রস্তুতি সম্পুর্ণ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ শারদীয় দূর্গা পূজাকে সামনে রেখে নিপূণ হাতে কাঁদামাটি, খড়, বাঁশ, সুতলি ও রং দিয়ে তৈরি হয়েছে প্রতিমা।

প্রতিমা তৈরির কাজে দিনরাত ব্যাস্ত সময় পার করছেন মৎশিল্পীরা।
বাগমারা উপজেলার ৮০টি মন্ডপে কারিগররা ফুটিয়ে তুলছেন দুর্গা, লক্ষী, স্বরসতী, গণেশ ও কার্তিকের প্রতিমা।
বাগমারার গোয়ালকান্দি ইউপিতে ৭টি মন্দিরে যথাক্রমে উদপাড়া সার্বজনীন দূর্গা মন্দির,গোয়ালকান্দি সার্বজনীন দূর্গা মন্দির, তেলিপুকুর কালিমাতার সার্বজনীন দূর্গা মন্দির, সেনপাড়া সার্বজনীন দূর্গা মন্দির, কামারখালী লাহেড়ীপাড়া হিমাংশু স্মৃর্তি দূর্গা মন্দির, কামারখালী পুন্ডরিপাড়া সার্বজনীন দূর্গা মন্দির ও কামারখালী পালপাড়া সার্বজনীন দূর্গা মন্দিরে ১লা অক্টোবর থেকে দূর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে ।
হিন্দু ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা পূজা ঘনিয়ে আসায় প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ করছেন কারিগররা।
শরতের উজ্জ্বল আকাশে সাদা মেঘের আনাগোনার মধ্যে, কাশফুলের শুভ্র আন্দোলনের সাথে তাল মিলিয়ে বাঙলা পঞ্জিকায় বছর ঘুরে আসে শরৎ।
প্রকৃতিতে ঋতুর রাণী শরতের আগমনেই সনাতন ধর্মালম্বীদের মনে দোলা দেয় দশভুজা মহামায়া ত্রিনয়নী দেবীর আবাহনী।
জানান দেয় শারদীয় উৎসবের। মা দুর্গতিনাশিনী দেবীর আগমনী বার্তায় ভক্তকূলে আনন্দের জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
তাইতো দেবী দুর্গাকে ঢাঁক, ঢোল, উলু আর শঙ্খ ধ্বনিতে বরণ করতে অধীর আগ্রহে প্রহর গুনছেন ভক্তবৃন্দরা।

গোয়ালকান্দি ইউনিয়ন পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক গৌতম কুমার জানান, মহাপঞ্চমীতে দেবীর বোধনের মধ্য দিয়ে দুর্গোৎসবের শুরু পরদিন ১ অক্টোবর মহাষষ্ঠীতে পূজা অর্চনা শুরু হয়ে মন্ডপে মন্ডপে বেজে উঠবে ঢাকঢোল আর কাঁসার শব্দ।
প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে সনাতনীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ।এবার উপজেলায় মোট ৮০টি পূজা মন্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হবে। তবে কোনো ঝুঁকিপূর্ণ মন্ডপ নেই।
তিনি আরো বলেন উপজেলা প্রশাসন এবং পুলিশ প্রশাসন পূজা ভালোভাবে পালনের লক্ষ্যে সব ধরনের সহযোগিতা করে যাচ্ছে।

ফেসবুকে সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2017 আলোকিত ভোরের বার্তা
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com