বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৪:১৯ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট :
আত্রাইয়ে সাংবাদিকদের ঈদ উপহার দিলেন ‘এমপি হেলাল’ গনকৈড় ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ফিরোজ উদ্দিনের ঈদ উপহার পেলেন ৩০০ পরিবার মোহনপুরে ছাত্রলীগ কর্মীদের ঈদ উপহার দিলেন হাবিবুর পুঠিয়ায় ঝড়ো হাওয়া শিলাবৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের উদ্যোগে রাজধানীতে গরিব ও অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ হোমনায় পানিতে ডুবে মা ও ছেলের মৃত্যু হোমনা উপজেলা কৃষক লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি ঘোষণা হোমনা পৌর সভায় প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ও ভিজিএফ’র নগদ অর্থ বিতরণ তিতাসে মোটরসাইকেল চুরির অভিযোগ তিতাসের মজিদপুর ইউনিয়নবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের অগ্রিম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শাহ আলম শান্তি

নওগাঁয় ধান কাটতে আসলো গাইবান্ধার শ্রমিক

নওগাঁয় ধান কাটতে আসলো গাইবান্ধার শ্রমিক

আবুহেনা,নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি : পুলিশের ব্যবস্থাপনায় দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে নওগাঁয় ধান কাটা ও মাড়াইয়ের জন্য কৃষি শ্রমিক আসতে শুরু করেছে। বুধবার বিকেলে গাইবান্ধা পুলিশের ব্যবস্থাপনায় নওগাঁয় দুই শতাধিক কৃষি শ্রমিক পাঠানো হয়।

বুধবার সন্ধ্যা নাগাদ নওগাঁ শহরের পূর্ব নওগাঁ ঢাকা মোড়ে গাইবান্ধা থেকে আসা শ্রমিকদের রিসিভ করেন নওগাঁর পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া বিপিএম। এ সময় এসব কৃষি শ্রমিকদের থার্মাল মেশিনের সাহায্যে শরীরের তাপমাত্রা পরিমাপ করা হয়। পরে তাঁদেরকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুরক্ষার জন্য মাস্ক, ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করে পুলিশ সদস্যরা। সেখানেই জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে তাদের ইফতার করানো হয়। ইফতার শেষে জেলা পুলিশের ব্যবস্থাপনায় এসব শ্রমিকদের বিভিন্ন গন্তব্যে পাঠানো হয়।

পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান মিয়া বলেন, দেশের অন্যতম বোরো উৎপাদনকারী জেলা নওগাঁ। প্রতি বছর আমন ও বোরো মৌসুমে জেলার অভ্যান্তরীণ কৃষি শ্রমিক ছাড়া বাইরের জেলার আরও ৭০-৮০ হাজার শ্রমিক প্রয়োজন হয় এ জেলায়। যে সব জেলায় ধান উৎপাদন কম হয়, ওই সব জেলার কৃষি শ্রমিকরা এ জেলায় ধান কাটতে আসেন। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে গত বছর বিশেষ ব্যবস্থাপনায় এ জেলায় বাইরের জেলা থেকে ধান কাটা শ্রমিক আনা হয়েছিল।

এবারেও বিভিন্ন জেলা পুলিশের উদ্যোগে নওগাঁ জেলায় ধান কাটা শ্রমিক আনার ব্যবস্থা করা হয়েছে। গাইবান্ধা থেকে ২১২ জন শ্রমিক আসার মধ্য দিয়ে এদিন থেকে এ জেলায় বাইরে থেকে শ্রমিক আনার কার্যক্রম শুরু হলো। আগামী ছয়-সাত দিনের মধ্যে গাইবান্ধা, কুড়িগ্রাম, লালমনিহাট, সিরাজগঞ্জ, পাবনাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ৬০ থেকে ৭০ হাজার কৃষি শ্রমিক এ জেলায় আসার কথা রয়েছে।

নওগাঁ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শামসুল ওয়াদুদ বলেন, ‘চলতি বোরো মৌসুমে ৪ লাখ ২৫ হাজার ৪০ জন কৃষি শ্রমিকের প্রয়োজন। এর মধ্যে স্থানীয়ভাবে শ্রমিক রয়েছেন ৩ লাখ ৪৬ হাজার ১৮৫ জন। অর্থাৎ আরও ৭৮ হাজার ৮৫৫ জন শ্রমিক অন্য জেলা থেকে নিয়ে আসতে হবে। চাহিদা অনুযায়ী কৃষি শ্রমিক দেশের অন্যান্য জেলা থেকে নিয়ে আসার জন্য পদক্ষেপ গ্রহণের ইতোমধ্যে জেলা সমন্বয় সভায় আলোচনা হয়েছে। বাইরে কৃষি শ্রমিক নিয়ে আসার কাজ চলছে। আশা করছি, ধান কাটা শ্রমিকের কোনো সংকট হবে না।’

নিউজটি শেয়ার করুন...

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018-2020  Bhorarbatra.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com